অটোপাশ চেয়ে ইউজিসি চেয়ারম্যান বরাবর এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ইমেইল


অটোপাশ চেয়ে ইউজিসি চেয়ারম্যান বরাবর এক বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রের ইমেইল

করোনা মহামারীর কারণে প্রায় তিনমাস লকডাউনে থাকার পর সবকিছুই অনেকটা স্বাভাবিক পরিস্থিতে ফিরেছে । কিন্তু বন্ধ রয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়সহ সকল প্রকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান । এমনিতেই বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে সেশনজট থাকে, তার উপর দীর্ঘ বন্ধে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের একপ্রকার ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে । এই ভোগান্তিতে অতিষ্ঠ হয়ে অবশেষে বিশ্ববিদ্যালয়ে অটোপাশ চেয়ে এক ছাত্র ইমেইল করলো ইউজিসি চেয়ারম্যান বরাবর । পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসি বিভাগের ঐ ছাত্র মোঃ শাকিল হোসেন ৭ বছরেও অনার্স শেষ করতে না পারার ক্ষোভে এই ইমেইল করেছে বলে জানা যায় । সেখানে সে বলেছে:

বরাবর,
চেয়ারম্যান 
বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশন 
বিষয়: বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের অটোপাশের আবেদন। 
জনাব,
যথাবিহিত সম্মান প্রদর্শকপূবর্বক নিবেদন এই যে, আমি পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১৩-১৪ সেশনের, ফার্মেসি বিভাগের একজন শিক্ষার্থী। আমি ৫বছর মেয়াদি বি.ফার্ম প্রফেশনাল ডিগ্রীতে ভর্তি হয়েছিলাম। আজ প্রায় সাত বছর হতে চলল, এখনও আমার পড়াশোনা শেষ হলো না। বর্তমান করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় বিশ্ববিদ্যালয় খোলার সম্ভাবনা খুবই কম। উল্লেখ্য আমরা সকল কোর্সের ক্লাস সম্পন্ন করছি। শুধু পরীক্ষা বাদ আছে। এ পরিস্থিতিতে পরীক্ষা গ্রহনও অসম্ভব। কিন্তু বিভিন্ন চাকরী পরীক্ষা নিয়মিত হচ্ছে। 

আমার মত স্নাতক ও স্নাতকোত্তর পর্যায়ে হাজারো শিক্ষার্থী আজ সেশনজটে হতাশা গ্রস্থ। অনেকেই হতাশা গ্রস্থ হয়ে মানসিক ভাবে অসুস্থ হয়ে পড়েছে। 

বেশ কয়েকদিন আগে, শিক্ষামন্ত্রমালয় কর্তৃক জানানো হয়েছে, এবছরের এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল বিগত এস এস সি ও জে এস সি ফলাফলের উপর ভিত্তি করে দেওয়া হবে। সেই একইভাবে, আমাদের ও পূর্ববর্তী সেমিস্টার/ ইয়ার এর রেজাল্ট এর উপর ভিত্তি করে ট্রান্সক্রিপ্টসহ রেজাল্ট ঘোষণা করার ক্ষমতা বিভাগগুলোকে দেওয়া হলে সংশ্লিষ্ট বিভাগগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসনের সহায়তা নিয়ে অতি সহজেই রেজাল্ট দিলে সেশনজোট একটু হলেও কমবে। সেই সাথে শেষ বর্ষের শিক্ষার্থীরা চাকরীর জন্য চেষ্টা করতে পারবে।

এটা যত দ্রত হবে ততই আমরা শিক্ষার্থীরা স্বাভাবিক জীবনে ফিরে আসব। তা না হলে, অনেকেই হতাশাগ্রস্থ হয়ে আত্বহত্যার পথেও যেতে পারে বলে আশংকা প্রকাশ করছি।

এই সকল পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে, হাজারো শিক্ষার্থীর কথা ভেবে উল্লেখকৃত বিষয়ে আপনার হস্তক্ষেপ কামনা করছি।

নিবেদন 
মোঃ শাকিল হোসেন 
শিক্ষার্থী, ফার্মেসি বিভাগ 
পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

No comments

Powered by Blogger.